আর্জেন্টিনার পাটাগোনিয়ান মারা এখন বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে

প্রকাশিত: অক্টোবর ৬, ২০২১

খরগোশ বা গিনিপিগ গোত্রীয় স্তন্যপায়ী প্রাণী ‘পাটাগোনিয়ান মারা’ গাজীপুরের শ্রীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে দেওয়া হয়েছে। সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তবিবুর রহমান জানান, মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাতে দুটি পাটাগোনিয়ান মারা সাফারি পার্কে দেওয়া হয়।

সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সাতক্ষীরা সীমান্ত এলাকা দিয়ে পাচারের সময় গত ৩ মার্চ সাতটি পাটাগোনিয়ান মারা উদ্ধার করে। সেগুলো প্রায় পাঁচ মাস তাদের সংরক্ষণে রাখা হয়। এ সময় একটির মৃত্যু হয়। পরে বিজিবি গত ২২ আগস্ট এ প্রাণীগুলো হস্তান্তর করে বন বিভাগের কাছে। তখনই নিশ্চিত হওয়া যায় এ প্রাণীগুলো আসলে আর্জেন্টিনার প্রাণী পাটাগোনিয়ান মারা।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ খুলনা অঞ্চলের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা নির্মল কুমার পাল বলেন, ‘বিজিবির কাছ থেকে আদালতের মাধ্যমে তারা ছয়টি প্রাণী বুঝে পান। এরপর সেগুলো বন্যপ্রাণী উদ্ধার ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে রাখা হয়। সেখানে গত ৩১ আগস্ট একটি নতুন শাবকের জন্ম হয়। পরে একে একে পাঁচটি প্রাণীই মারা যায়। অবশিষ্ট দুটি প্রাণীকে মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাতে গাজীপুরের শ্রীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে হস্তান্তর করা হয়।

‘পাটাগোনিয়ান মারা’ সাধারণত ২৭ ইঞ্চি দীর্ঘ এবং ওজনে ৮ থেকে ১৬ কেজি পর্যন্ত হয়। এরা সর্বোচ্চ ১৪ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে।