মামুনুল পরিবারের দখলমুক্ত জামিয়া রাহামানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা

প্রকাশিত: জুলাই ২০, ২০২১

প্রায় ২০ বছর পর রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ঐতিহ্যবাহী জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা মামুনুল হক পরিবারের দখল থেকে মুক্ত হয়েছে।

সোমবার (১৯ জুলাই) বিকেলে ঢাকা জেলা প্রশাসন ওয়াকফ এস্টেট কমিটির কাছে মাদ্রাসা ভবনের দখল বুঝিয়ে দেয়। এর আগে, সকালে মামুনুল হকের বড় ভাই মাদ্রাসাটির অধ্যক্ষ মাওলানা মাহফুজুল হক সংবাদ সম্মেলন করে ছাত্র-শিক্ষকদের নিয়ে চলে যান।

আশির দশকে প্রতিষ্ঠিত হয় মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা। ২০০১ সালে বিএনপি জোট ক্ষমতায় আসার পর এই মাদ্রাসা দখলে নেন মামুনুল হকের ভাই আজিজুল হক। ওয়াকফ এস্টেট অনুমোদিত মাদ্রাসার কমিটি বিলুপ্ত করে একটি পরিচালানা পর্ষদ গঠন করেন তিনি। এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে যায় কমিটি। তাদের পক্ষে রায়ও দেয় আদালত। কিন্ত, তারপরও এক যুগ মাদ্রাটি দখল করে রেখেছিল মাহফুজুল হক ও মামুনুল হকরা।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধিতা করে গত বছরের শেষ দিকে আলোচনায় আসেন মামুনুল ও মাহফুজুল হকরা। গত মার্চে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের বিরোধিতাকারীদের অন্যতমও ছিলেন তারা। বেশ কয়েকটি মামলায় বর্তমানে কারাগারে আছেন মামুনুল হক।

নানা ঘটনার পর সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে মাদ্রাসার দখল ছাড়েন মাহফুজুল হক। এরপর ওয়াকফ কমিটির কাছে মাদ্রাসার দখল বুঝিয়ে দেয় জেলা প্রশাসন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল আওয়াল জানান, একটি পক্ষ মাদ্রাসা দখল করেছিল। আদালত যাদের পক্ষে রায় দিয়েছে, তাদের দখল বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

কমিটির সভাপতি আব্দুর রহীম জানান, এখন থেকে রাজনীতি দূর করে শুধু শিক্ষাকার্যক্রম চালানো হবে মাদ্রাসায়।