শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিনেই রাজধানীতে তীব্র যানজট

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিনেই রাজধানীতে সৃষ্টি হয় তীব্র যানজটের।অলিগলির পাশাপাশি প্রধান সড়কে গাড়ির পরিমাণও বেড়ে যায় অনেক। এক্ষেত্রে স্কুলগামী ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যাই বেশি ছিল। থেমে থেমে চলে যানবাহন। একে তো তীব্র গরম তার উপরে ভয়াবহ যানজট ছিল দিনজুড়ে। সবমিলিয়ে নাভিশ্বাস হয়ে উঠে নগরজীবন।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিনেই রাজধানীর ছোটো-বড় সড়কে অন্য যে কোনো দিনের তুলনায় গাড়ির চাপ অনেক বেশি ছিল। সে কারণে বেড়ে যায় ব্যক্তিগত গাড়িও। আগে যেখানে যেতে সময় লাগতো ২০ মিনিট রোববার সে পথ পাড়ি দিতে সময় লেগেছে এক ঘণ্টারও বেশি সময়।

তবে শুধু স্কুল খোলার কারণেই নয় বরং ট্রাফিক পুলিশের অব্যবস্থাপনা আর সড়কে চলা নির্মাণ কাজের ধীরগতির কারণে রাস্তায় যানজটে নাকাল জনজীবন।যদিও পুলিশ বলছে, তারা চেষ্টা করছেন সাধ্যমতো।

দুই একদিনের মধ্যে এই যানজট আরও তীব্র আকার ধারণ করবে বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের। তাই এখন থেকেই সঠিক ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় নজর দিতে রয়েছে জোর তাগিদ।

এদিকে, সকালে স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে কোন ছাড় দেয়া হবে না উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মণি বলেছেন, সরকার টিকাদানের বয়সসীমা ১২ বছর করার চিন্তাভাবনা করছে। স্কুল খোলার প্রথম দিন আজিমপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ পরিদর্শন করে ইউনিফর্মের জন্য বাড়তি চাপ না দিতে আহ্বান জানান শিক্ষামন্ত্রী। এদিকে, স্কুল আঙিনায় ময়লা থাকায় সাময়িক বরখাস্ত করা হয় প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ ও তদারক কর্মকর্তাকে।

সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে অভিভাবকদের অযথা ভিড় না করতে আহবান জানান মন্ত্রী।