কিস্তির টাকা দিতে না পেরে গৃহবধূর আত্মহত্যা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

কিস্তির টাকা দিতে না পেরে শেফালী বেগম (৬০) নামের এক বৃদ্ধা আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বাকেরগঞ্জ উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়নের ডিঙ্গার হাটবাজারের পূর্ব পাশে হিরাধর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শেফালী হিরাধর গ্রামের করম আলী সিকদারের স্ত্রী।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য ফখর উদ্দিন জানান, করম আলী অত্যন্ত গরিব। তারা বিভিন্ন সমিতি থেকে কিস্তি তুলে সংসার চালান। বিভিন্ন জনের বাড়িতে কাজ করে সেই কিস্তির টাকা পরিশোধ করেন। সোমবার সকালে গ্রামীণ ব্যাংকের এক লোক কিস্তি নিতে এসেছিলেন। তখন করম আলী ঘরে ছিলেন না।

হয়তো শেফালী কিস্তির টাকা দিতে পারেননি, এ জন্য কিস্তি উত্তোলনকারীর সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হতে পারে। কিছুক্ষণ পরেই জানতে পারি শেফালী বেগম গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

তবে গ্রামীণ ব্যাংক উপজেলা কর্মকর্তা ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, শেফালী বেগমের সঙ্গে আমাদের লোকের সাক্ষাৎ হয়নি। তা ছাড়া শেফালী বেগমের কিস্তির বকেয়া গ্রামীণ ব্যাংকে নেই। তিনি কী কারণে আত্মহত্যা করেছেন, তা আমরা বলতে পারব না।

বাকেরগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সত্য রঞ্জন বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।