টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকেও বিদায় বললেন মালিঙ্গা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

২২ গজে ১৭ বছরের এক রঙিন অধ্যায়ের সমাপ্তি হলো আজ, সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন শ্রীলঙ্কার তারকা ক্রিকেটার লাসিথ মালিঙ্গা। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সব ধরনের ক্রিকেট থেকেই অবসর নেয়ার কথা ঘোষণা দিলেন তিনি। নিজের টুইটার হ্যান্ডলেই অবসরের সিদ্ধান্তের কথা জানান ফ্যাশনেবল এই লঙ্কান তারকা।

টুইটারে মালিঙ্গা লিখেছেন, ‘আমি আমার টি-টোয়েন্টির জুতো জোড়াও এবার তুলে রাখলাম। সব ধরনের ক্রিকেট থেকেই অবসর নিলাম আমি। যাঁরা আমার ১৭ বছরের এই সফরে সব সময়ে পাশে ছিলেন, তাঁদের অসংখ্য ধন্যবাদ। এরপর আমি তরুণ ক্রিকেটারদের সঙ্গে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নেয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে থাকব।’

এ ছাড়াও মালিঙ্গা নিজের নতুন ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে জানিয়েছেন, ‘আমি আজকে (মঙ্গলবার) সিদ্ধান্ত নিয়েছি, নিজের টি-টোয়েন্টি খেলার জুতোকে সম্পূর্ণভাবে বিশ্রাম দেব। যাঁরা আমার এই টি-টোয়েন্টি সফরে আমাকে সমর্থন করেছেন, আমার শুভ কামনা জানিয়েছেন সকলকে ধন্যবাদ।’

এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে আইপিএলের টিম মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স তাকে ছেড়ে দিলে, ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন মালিঙ্গা। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

তার আগে এই বছরেই টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন মালিঙ্গা। আর একদিনের ক্রিকেট থেকে মালিঙ্গা সরে দাঁড়ান ২০১৯ সালে। তবে পুরোদমেই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু এবার টি-টোয়েন্টি থেকেও সরে দাঁড়ালেন ডানহাতি এই পেসার।

লঙ্কান জাতীয় দলের হয়ে ৮৪ ম্যাচ খেলা লাসিথ মালিঙ্গা ৮৩ ইনিংসে বোলিং করে ১০৭টি টি-টোয়েন্টি উইকেট শিকার করেছেন। ইকানামি রেট ৭.৪২। আইপিএলে ১৬.৬২ স্ট্রাইক রেটে নিয়েছেন ১৭০টি উইকেট। এই টুর্নামেন্টে ৯০টির বেশি উইকেট পাওয়া যে কোনও বোলারের থেকে এটাই সর্বনিম্ন স্ট্রাইক রেট। মালিঙ্গার মতো ডেথ ওভারে ধারাবাহিকভাবে ভালো পারফরম্যান্স করে যাওয়া বোলার আইপিএলে দ্বিতীয় কেউ নেই।

এছাড়া লঙ্কার হয়ে ৩০ টেস্টে ১০১টি উইকেট নিয়েছেন মালিঙ্গা। ম্যাচে একবারও দশ উইকেট না থাকলেও ইনিংসে ৫ উইকেট আছে তিনবার। সেরা বোলিং ফিগার ৫/৫০। আর ২২৬ ওয়ানডের ২২০ ইনিংসে বোলিং করে ২৮.৮৭ গড়ে ও ৫.৩৫ ইকোনোমি রেটে শিকার করেছেন ৩৩৮টি উইকেট। সেরা বোলিং ফিগার ৬/৩৮ এবং ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়েছেন আটবার।

শেষের দশকে শ্রীলঙ্কার টি-টোয়েন্টি দলের সাফল্যের প্রধান কারিগর ছিলেন মালিঙ্গা। ২০০৯ ও ২০১২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে লঙ্কার বোলিং আক্রমণকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনিই। ২০১৪ বিশ্বকাপ জয়ী দলের অধিনায়কও ছিলেন। ৩৮ বছর বয়সী এই স্মার্ট তারকার বিদায়ের সঙ্গে সঙ্গে সমাপ্তি হলো শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটের এক গৌরবময় অধ্যায়েরও।